দ্বিধান্বিত হৃদয়ে ঝড় তুলে ধরা দেয় অশরীরী ছায়া
কম্পন হয়, বোবা চিৎকারে ছুটে চলে ফেরারি যৌবন!
শিউরে উপচে পড়া ডায়েরির পাতায় চোখ বুলে
কেঁদে ওঠে পৌষালীর মন।
স্মৃতির আবছায়ায় জমে আছে কত রংবেরঙের সুখ।
কষ্টের আদুরে গিলে গেছে যার সবটুকু নিঃশেষ!
জীবনের পাতায় লেপ্টে থাকা বিরহ শোকে পাথর হয় আজও শত শত বুক।

নিয়তির মতো করে কেউ আর ভালোবাসেনি
তো খুব।
একাকিত্বের যাত্রী হয়ে ওপারে যাবার সময়
যে এসেছে ফিরে;
কেউ ডেকো না আর পিছু পিছু মায়ার চাদর ঘিরে।
জীবনের নির্মম শোক ঘুচিয়ে নিয়েছি সবই,
প্রশান্তির বৃষ্টি শীতল করেছে বুক অঝোরে ঝরে।
শিশিরের জলে স্নান সেরে এইবার ঘুমিয়ে রবো
সে হিমায়িত মাটির ঘরে।