পাঠের আসরে মনোযোগী বন্ধুরা
ছবি: বন্ধুসভা

পদ্মা নদীর তীরসংলগ্ন কেতুপুর ও পার্শ্ববর্তী কয়েকটি গ্রামের মানুষের জীবন-জীবিকার চালচিত্র ‘পদ্মা নদীর মাঝি’ উপন্যাসে দারুণভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়। প্রধান চরিত্র হতদরিদ্র কুবের মাঝি। সে তাঁর অন্য সঙ্গীদের সঙ্গে মিলে পদ্মা নদীতে মাছ শিকার করে জীবিকা নির্বাহ করে। স্ত্রী পঙ্গু মালা, একমাত্র মেয়ে গোপী, তিন ছেলে ও বোনকে নিয়ে কুবেরের সংসার। পরে মালার বোন কপিলাও এসে ওঠে দরিদ্র এই সংসারে। আরেক চরিত্র হোসেন মিয়া। জেলে ও মাঝিদের সঙ্গে তাঁর রহস্যময় সম্পর্ক নিয়ে এগিয়ে যায় কাহিনি।

২৩ জানুয়ারি বিকেলে বন্ধু আড্ডা ও ‘পদ্মা নদীর মাঝি’ বইটি নিয়ে পাঠচক্র করেছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধুসভা। বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এটি অনুষ্ঠিত হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পাঠচক্র অনুষ্ঠিত হয়
ছবি: বন্ধুসভা

নতুন কার্যনির্বাহী সদস্যদের পরিচিতির মাধ্যমে আড্ডার সূচনা হয়। এরপর শুরু হয় মূল বইয়ের আলোচনা। কুবি বন্ধুসভার সভাপতি উম্মে হাবিবা বলেন, ‘বন্ধুসভা বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী কাজের পাশাপাশি বই পড়াকে গুরুত্ব দিয়ে থাকে। তারই ধারাবাহিকতায় আমাদের এ পাঠের আসর।’

সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসানের সঞ্চালনায় ওই সভায় নবগঠিত কমিটির নতুন বছরের সম্ভাব্য কার্যক্রম সম্পর্কেও আলোচনা করা হয়।

প্রচার সম্পাদক, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধুসভা