default-image

বৈশাখের তীব্র দাবদাহ ও মহামারির সংকটময় পরিস্থিতি উপেক্ষা করে অনুষ্ঠিত হলো বন্ধুসভার ভার্চ্যুয়াল সাংগঠনিক বৈঠক। প্রথম আলো বন্ধুসভা জাতীয় পরিচালনা পর্ষদের আয়োজনে ও ঢাকা মহানগর বন্ধুসভার সহযোগিতায় এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

১৮ এপ্রিল থেকে মোট ৯টি পর্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকের শেষ পর্ব ছিল ২৬ এপ্রিল। এদিন বেলা তিনটায় জুম ক্লাউড মিটিং অ্যাপের মাধ্যমে ঢাকা বিভাগের ২০টি বন্ধুসভার ১৩৬ জন বন্ধু বৈঠকে অংশ নেন। বৈঠকে অংশগ্রহণকারী বন্ধুসভাগুলো হলো ঢাকা মহানগর, গাজীপুর, গোপালগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, মাদারীপুর, নারায়ণগঞ্জ, নরসিংদী, সাভার, টাঙ্গাইল, ভৈরব, যাত্রাবাড়ী, কেরানীগঞ্জ, রাজবাড়ী, গোয়ালন্দ, সখীপুর, উত্তরা, মুন্সিগঞ্জ, ফরিদপুর, মানিকগঞ্জ ও শরীয়তপুর।

নিজ নিজ অবস্থান থেকে দাঁড়িয়ে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন প্রথম আলো বন্ধুসভা জাতীয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি ড. মুমিত আল রশিদ, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিন্স শাহ আলম, ইতিহাস–ঐতিহ্য ও ভ্রমণবিষয়ক সম্পাদক সাইদুল হাসান, ঢাকা মহানগর বন্ধুসভার সভাপতি নাজমুল হাসান পলাশ, সাধারণ সম্পাদক রুকাইয়া জহির প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

প্রথমেই শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন নাজমুল হাসান পলাশ। তিনি এই মহামারির সময়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বন্ধুদের কর্মকাণ্ড পরিচালনার আহ্বান জানান।

মুমিত আল রশিদ তাঁর বক্তব্যে বন্ধুদের গঠনতন্ত্রের আদর্শ ধারণ করে মুক্তিযুদ্ধ, দেশপ্রেম, অসাম্প্রদায়িক চেতনা ও বই পাঠের প্রতি গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বন্ধুদের প্রযুক্তি ব্যবহারে দক্ষ হওয়া এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারে সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানান।

বৈঠকে প্রতিটি বন্ধুসভার একজন প্রতিনিধি তিন মিনিট করে তাঁদের কার্যক্রম, কর্মপরিকল্পনা, জাতীয় পর্ষদ ও সারা দেশের বন্ধুদের কাছে তুলে ধরেন।

নরসিংদী বন্ধুসভার বন্ধু হৃদয় সাহা বছরের শুরুতেই বেদে সম্প্রদায়কে সঙ্গে নিয়ে পিঠা উৎসবের কথা উল্লেখ করেন। নারায়ণগঞ্জ বন্ধুসভা বছরব্যাপী ১২টি পাঠচক্র আয়োজনের পরিকল্পনার কথা জানায়।

গোয়ালন্দ বন্ধুসভা গোয়ালন্দ ঘাটের বিভিন্ন মানসিক ভারসাম্যহীন ব্যক্তিকে সাহায্যের কথা জানায়। মানিকগঞ্জ বন্ধুসভা তাদের গ্রামের টিউবওয়েলগুলোতে সাবান এবং স্যানিটাইজার সরবরাহ করেন।

default-image

রাজবাড়ী বন্ধুসভা একটি নৌভ্রমণ আয়োজনের কথা উল্লেখ করে। মাদারীপুর বন্ধুসভা মাদক নির্মূলে জনসচেতনতা সৃষ্টির কর্মসূচির কথা জানায়। গোপালগঞ্জ বন্ধুসভার প্রতিনিধি জানান, তাঁরা মুক্তিযুদ্ধের দিনলিপি পাঠের আয়োজন করেন এবং বন্ধুদের জন্য মাইক্রোসফট অফিস প্রশিক্ষণ কর্মশালার পরিকল্পনা করেছেন।

কেরানীগঞ্জ বন্ধুসভার প্রতিনিধি সারা দেশে বন্ধুসভার নিজস্ব আয়োজনে জাতীয় পরিচালনা পর্ষদ এবং ঢাকা মহানগর বন্ধুসভার অংশগ্রহণের প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

প্রিন্স শাহ আলম সবার প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। এ ছাড়া শুভেচ্ছা জানান ঢাকা মহানগর বন্ধুসভার ফরহাদ হোসেন মল্লিক।

বৈঠকের শেষাংশে ছিল বন্ধুদের প্রশ্নোত্তর পর্ব। এ পর্বে জাতীয় পরিচালনা পর্ষদ থেকে বন্ধুদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হয়। বৈঠকটি সমন্বয় এবং সঞ্চালনায় ছিলেন রুকাইয়া জহির।

বিজ্ঞাপন
কার্যক্রম থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন